বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
৪২,৮৪৪
সুস্থ
৯,০১৫
মৃত্যু
৫৮২

বিশ্বে

আক্রান্ত
৬,০৪৫,৬৫৩
সুস্থ
২,৬৭১,৪৪০
মৃত্যু
৩৬৭,১১৬

বাংলাদেশ এর নতুন রাজনৈতিক দল “আমার বাংলাদেশ পার্টি” (এবি পার্টি)।

জামায়াতে ইসলামীর সংস্কারপন্থি হিসাবে পরিচিতদের নিয়ে নানান সন্দেহ প্রকাশ করছেন রাজনৈতিক নেতারা।

তাদেরকে কেউ মনে করছেন সংকটে পড়া জামায়াতে ইসলাম কে টিকিয়ে রাখতে তাদের নতুন পন্থা। আবার কেউ মনে করছেন এর পিছনে বড় কোন ক্ষমতাসীন এর হাত রয়েছে। আবার কেউ মনে করছেন বিদেশি কোনো ষড়যন্ত্র।

যখন জামায়াতে ইসলামী শীর্ষ নেতাদের ফাঁসি হতে থাকে তখন তাদের এই অংশটি
আলাদা প্লাটফর্ম গঠন করে। তার ঠিক একবছর পর গত শনিবার তারা নতুন দল গঠন করে “আমার বাংলাদেশ পার্টি” (এবি পার্ট) এবং তারা বলেন মুক্তিযুদ্বের অঙ্গীকার বাস্তবায়ন করতে চান।

এটাকে জামায়াতের ‘রাজনৈতিক কৌশল’ হিসেবেই দেখছেন একাত্তরের ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি শাহরিয়ার কবির।

তিনি আরও বলেন, “জামায়াতের বয়স হচ্ছে প্রায় ৮০ বছর। এই ৮ দশকে বহুবার জামায়াত খোলস পাল্টেছে। সাপ খোলস পাল্টায় সারভাইব (টিকে থাকার জন্য) করার জন্য। খোলস পাল্টানোর অর্থ এই নয়, সাপ নির্বিষ হয়ে গেছে। জামায়ত খোলস পাল্টায় নিজেদের বাঁচিয়ে রাখার জন্য, টিকিয়ে রাখার জন্য।”

শাহরিয়ার কবির আরো জানান
“বাংলাদেশের জামায়াত কিন্তু প্রকৃতপক্ষে পাকিস্তানের জামায়াতের একটা শাখা। এখন হয়ত পাকিস্তান থেকে নির্দেশ এসেছে, তোমাদের সেকেন্ড একটা উইং থাকা দরকার। সরকার যেকোনো সময় জামায়াতকে নিষিদ্ধ করে দিতে পারে। বাংলাদেশের গঠনতন্ত্রের প্রতি আনুগত্য প্রকাশ করে একটা নতুন দল কর।

নতুন দল আত্মপ্রকাশের পেছনে জামায়াতের যুদ্ধাপরাধী শীর্ষ নেতাদের প্রধান আইনজীবী ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাকের ভূমিকা রয়েছে বলেও মনে করেন বিচারপতি শামসুদ্দিন মানিক।

তিনি বলেন, “আগের সব দায় থেকে নিষ্কৃতি পাওয়ার জন্যই ছলেবলে তারা এই দলটি করেছে। এর পেছনে আছেন ব্যারিস্টার রাজ্জাক। যে ছিল যুদ্ধাপরাধীদের পক্ষের প্রধান আইনজীবী। সিলেটে অনেক মুক্তিযোদ্ধা, নিরাপরাধ মানুষকে সে হত্যা করেছে একাত্তরে। এটা নিয়ে যখন তদন্ত শুরু হল, তখন কিন্তু সে পালিয়ে গেছে যুক্তরাজ্যে।

“এবং কিছুদিন আগে যুক্তরাজ্য থেকে একটা বিবৃতি দিয়ে বলেছে যে, জামায়াতে ইসলামীর সাথে সে আর নেই। এটি একটি আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র। আমি মনে করি, এর পেছনে তারেক জিয়ার পরিবারও জড়িত।”