বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
৪২,৮৪৪
সুস্থ
৯,০১৫
মৃত্যু
৫৮২

বিশ্বে

আক্রান্ত
৬,০৪৫,৩২৮
সুস্থ
২,৬৭১,৪২৭
মৃত্যু
৩৬৭,১১১

প্রথম শ্রেণির যোদ্ধা হিসেবে কাজ করে যাচ্ছে সংবাদ কর্মীরা ।

৫ মে ২০২০
নিজস্ব প্রতিনিধি : মো জুনায়েদ আহম্মেদ

সংবাদ কর্মীরা কাজ করে যাচ্ছেন আপন মনে। দেশের এই সংকটাময় সময়ে নিজের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ছুটে বেড়াচ্ছেন এক স্থান থেকে অন্য স্থানে। কাজ একটাই, কিভাবে দ্রুত সংবাদ পৌঁছে দেয়া যায় জনগণের কাছে। ছুটে বেড়াচ্ছেন রাস্তায় রাস্তায় কখনো বাজার কখনোবা হাসপাতালে।

সংবাদ কর্মীদের নেই কোন বীমা নেই কোন ধরনের প্রনদনা, পেশার নেশায় তাদের এই পথ চলা। প্রচার করে যাচ্ছেন সারা বিশ্বের প্রতি দিনের, প্রতি ঘন্টার,প্রতি মিনিটের খবর। দিন শেষে আবার ফিরে যাচ্ছেন নিজ নিজ পরিবার এর কাছে। কিন্তু কত জন ফিরে যেতে পারছে সুস্থ ভাবে তার পরিবার এর কাছে, প্রশ্ন থেকে যায়?

দেশের মোট করোনা আক্রান্তদের মধ্যে বাদ যায়নি সাংবাদ কর্মীরা। দেশে এই পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হয়েছে অর্ধশতাধিক সাংবাদিক। মৃত্যু ও হয়েছে এক জনের। তার পরো থেম নেই সংবাদ প্রচারণা। ডায়রি,কলম আর কেমেরা নিয়ে ছুটছেন এদিক সেদিক।

একবার চিন্তা করে দেখেন যদি এক দিন সংবাদ প্রচার বন্ধ থাকে কি হবে? না জানা যাবে দেশের খাবর না বিশ্বের। কতো জন আক্রান্ত কতো জন সুস্থ কতো জন মারা গেছেন কিনবা এই পর্যন্ত কতো জন সংক্রামিত।

ডাক্তার, নার্স,পুলিশ, সেনাবাহিনী যেমন দিন রাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন তেমনি তাদের মতো প্রথম শ্রেণির যোদ্ধা হিসেবে জীবন ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন সংবাদ কর্মীরা। কোন প্রকার প্রনদনা বা আর্থিক সহযোগিতার আশায় নয় বরং কাজ করে যাচ্ছেন নিজ দায়িত্ববোধ থেকে।

তাদের এ অক্লান্ত পরিশ্রম এর ফলে পৌঁছে যাচ্ছে খবর দেশ বিদেশে তাদের। দিন শেষে পরিবার এর সাথে দেখা করতে যওয়টাও তাদের একটা সপ্নের মতো তবও কখনও রাতে ও খবর সংগ্রহ করতে বেরোতে হয় তাদের দিন রাত একই।
দেশের এ প্রান্ত থেকে ও প্রান্ত সবই যেনো তাদের গন্তব্য। কখনও বা খাবার খেয়ে আবার কখনো খেয়ে ছুটতে হয় সত্যের সন্ধানে।

সুস্থ থাকুক সকল সংবাদ কর্মী, সুস্থ থাকুক তাদের পরিবার এমনটাই প্রতাশা করা উচিত দেশের সর্বস্থরের মানুষের।